পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযান চালিয়ে এসআইকে লাঞ্ছিত

পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযান চালিয়ে এসআইকে লাঞ্ছিত, দাদনের টাকা আদায় করতে বগুড়ায় পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা করে তিন বোন এক পুলিশ কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রোববার বিকেল ৫টার দিকে বগুড়া সদর পুলিশ ফাঁড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত দাদন ব্যবসায়ীর তিন বোনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আরও খবর পেতে ভিজিট করুনঃ newsallw.com

পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযান চালিয়ে এসআইকে লাঞ্ছিত

লাঞ্ছিত পুলিশ কর্মকর্তার নাম খোরশেদ আলম। তিনি সদর পুলিশ ফাঁড়িতে উপ-পরিদর্শক (এসআই) পদে কর্মরত।

এক মাস আগে এক গৃহবধূর কাছ থেকে দাদনের টাকা আদায় করতে ওই তিন নারী বাড়িতে হানা দিতে গেলে এসআই খোরশেদ তাদের বাধা দেন।

এরপর থেকে তারা টাকা আদায়ের জন্য খোরশেদকে চাপ দিতে থাকে।

এর পরেই ফাঁড়িতে হামলা চালানো হয় বলে পুলিশের অভিযোগ।

বগুড়ার উত্তর চেলোপাড়া এলাকার রেখা (৫২), সূর্য বেগম (৪২) ও দুলি বেগমের (৪০) বিরুদ্ধে ফাঁড়ি ভাঙচুর ও পুলিশকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ রয়েছে।

এসআই খোরশেদ আলম প্রথম আলোকে বলেন, নগরীর জলেশ্বরীতলা এলাকার আফরোজা বেগম নামের এক গৃহবধূ সূর্য বেগমের কাছ থেকে এক বছর আগে চড়া সুদে ৩১ লাখ টাকা ধার নেন।

আফরোজার দাবি, তিনি ইতিমধ্যেই ৫৭ লাখ টাকা সুদ দিয়েছেন।

পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযান চালিয়ে এসআইকে লাঞ্ছিত

কিন্তু সূর্য বেগম তার কাছে আরও ৪৪ লাখ টাকা দাবি করছেন। প্রায় এক মাস আগে তিন বোন রেখা, সূর্য ও দুলি ওই গৃহবধূর বাড়িতে গিয়ে তার ওপর হামলা চালায়।

তিনি ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি সার্ভিসেস নম্বর ‘999’ এ কল করে ভাঙচুর ও হামলার অভিযোগ করেন।

অভিযোগ পেয়ে এসআই খোরশেদ ফাঁড়ির পুলিশ সদস্যসহ ঘটনাস্থলে এসে তিন বোনকে বাধা দেন।

টাকা লেনদেন হলে আইনের আশ্রয় নেওয়ারও পরামর্শ দেন তিনি।

এসআই খোরশেদ আলম জানায়, দাদন ব্যবসায়ী তিন বোনের কাছ থেকে টাকা আদায়ের জন্য আফরোজা বেগমকে চাপ দিচ্ছিল।

এতে রাজি না হওয়ায় রোববার দুপুরে সদর ফাঁড়িতে এসে তার ওপর হামলা চালায় এবং অফিস কক্ষে ভাঙচুর শুরু করে।

একপর্যায়ে তারা খোরশেদের কাপড় চেপে ধরে টেনে হিঁচড়ে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে।

তিন বোনের সবাই দাদন ব্যবসায়ী

এ সময় মহিলা পুলিশ সদস্যরা এসে তিন বোনকে আটক করে সদর থানা হেফাজতে নিয়ে যায়।

বগুড়া সদর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক তাজমিলুর রহমান বলেন, কারো পাওনা আদায় করা পুলিশের কাজ নয়।

আফরোজা বেগমের কাছে টাকা পাওনা থাকলে তারা আদালতের শরণাপন্ন হতে পারতেন।

পরিবর্তে, তিন বোন পুলিশ ফাঁড়িতে ঢুকে হামলা ও ভাংচুর করে, একজন অফিসারকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে।

তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা ও সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আফরোজা বেগম জানান, তিন বোনের সবাই দাদন ব্যবসায়ী।

তিনি এক বছর আগে তাদের কাছ থেকে গৃহস্থালির প্রয়োজনে ৩১ লাখ টাকা ধার নিয়ে এ পর্যন্ত ৫৭ লাখ টাকা সুদসহ পরিশোধ করেছেন। কিন্তু সুদের জন্য তারা ৮১ লাখ টাকা দাবি করছে।

দাবিকৃত টাকা না পেয়ে এক মাস আগে বাড়িতে গিয়ে হামলা ও মারধর করে তারা।

৯৯৯ নম্বরে অভিযোগ করলে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।

About admin

Check Also

উত্তর দক্ষিণ প্রক্টরসহ ৫ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলা

উত্তর দক্ষিণ প্রক্টরসহ ৫ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলা

 উত্তর দক্ষিণ প্রক্টরসহ ৫ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলা , জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষককে মারধর ও হয়রানির …

Leave a Reply

Your email address will not be published.